যে সমস্ত বদ অভ্যাস গুলো শরীর ক্রমেই দূর্বল করে তুলে, তা জেনে নিন!

শরীরকে সুস্থ রাখতে আমরা স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন করে থাকি। এছাড়া পুষ্টিকর খাবারও খেয়ে থাকি। তবে আমাদের এমন কিছু বদভ্যাস রয়েছে যেগুলো শরীরকে খারাপের দিকে ঠেলে দেয়।
চলুন তবে জেনে নেয়া যাক কোন কোন বদভ্যাসগুলো আমাদের শরীরকে দুর্বল করে দেয়-

অসুরক্ষিত যৌনজীবন

যৌন মিলনের ক্ষেত্রে সবসময় সচেতন থাকা উচিত। অনিয়ন্ত্রিত ও অসুরক্ষিত যৌনজীবন শরীরের পক্ষে সবসময়ই হানিকারক।

অ্যালকোহল

শারীরিক ও পারিবারিক দুই ক্ষেত্রেই অভিশাপ হয়ে ওঠে অ্যালকোহলে আসক্তি। তাই অবিলম্বে তা থেকে বেরিয়ে আসাই বুদ্ধিমানের কাজ।

ধূমপান

ধূমপানের অপকারিতা নিয়ে সবসময় গণমাধ্যমে প্রচার চলতে থাকে। ধূমপানের অভ্যাস শরীরকে একেবারে তছনছ করে দেয়। অবিলম্বে এই অভ্যাস ত্যাগ করা উচিত।

জাঙ্ক ফুড

ব্যস্ততার কারণে বাড়িতে রান্না করার সময়ই পাওয়া যায় না। স্বামী-স্ত্রী দুজনেই কর্মরত হলে তো কথাই নেই। দুপুরের লাঞ্চে বার্গার বা সন্ধ্যায় ফেরার পথে ফ্রেঞ্চ ফ্রাই-ই হয়ে ওঠে নিয়মিত খাবার। তবে এসব জাঙ্ক ফুড শরীরকে ভেতর থেকে দুর্বল করে দেয়।

ক্লান্তি

ক্লান্তিকে দূরে সরিয়ে রাখা হয়ত মুশকিল। তবে তাকে কমানোর চেষ্টা করাটাই বুদ্ধিমানের কাজ। যখনই অতিরিক্ত ক্লান্ত মনে হবে নিজেকে তখনই সব কাজ থেকে সরিয়ে কিছুক্ষণ বিশ্রাম করুন। শ্বাস-প্রশ্বাসের নানা ব্যায়াম করুন।

শরীরচর্চা না করা

শরীরচর্চা না করলে শরীর দুর্বল হতে বাধ্য। প্রতিনিয়ত শরীরচর্চা করলে শরীরে রোগ প্রতিরোধকারী অ্যান্টিবডি তৈরি হয়। এর জন্য ঘণ্টার পর ঘণ্টা ঘাম ঝরানোর প্রয়োজন নেই। সাইক্লিং বা কিছুক্ষণ হাঁটা বা দৌড়নোও দারুন কাজ দেয়।

নিদ্রাহীন থাকা

এখনকার দিনে অনেকেই রাতে কম ঘুমান। তবে এই অভ্যাস শরীরের নানা ক্ষমতাকে কমিয়ে দেয়। কম ঘুমের ফলে স্থূলত্ব বাড়তে থাকে, হাইপারটেনশনের সমস্যা হয়, কাজে মন বসে না, ডায়বেটিসে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে ইত্যাদি।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*